ভারতে মোহাম্মদী ইসলাম প্রচার ও পটভূমিকা- ২য় পর্ব।

ভারতে মোহাম্মদী ইসলাম প্রচার ও পটভূমিকা- ২য় পর্ব।। লেখকঃ আশেকে রাসুল আক্কাস আলী।
দ্বিতীয় পোস্ট শুরু করার আগে যে কথাটা বলতে চাই, সেটা হল প্রথম বার যাওয়ার সময় সাঈদী সাহেবের তাফসির মাহফিলে সাঈদী যে বিরুদ্ধ বক্তব্য রেখেছিল, আমি সেই কথা বাবা দেওয়ানবাগীর কাছে বলেছিলাম ৷ তার একটা মত হল, যে সে বেঁচে রয়েছে অথচ সবাই সূফী সম্রাট বলছে, থাকে যুগশ্রেষ্ঠ মহামানব বলছে, মোহাম্মদ ইসলামের পূর্ণ জীবন দানকারী বলছে, এটা মেনে নেওয়া যায় না৷ মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সাঈদী আরও বলল, যে মোহাম্মদী ইসলাম বলে কোন ইসলাম হয়না ৷ইসলাম আল্লাহর ইসলাম৷ বাবাজন তার উত্তরে আমাকে বুঝালেন, আলিয়াওমা আকমালতু লাকুম দিনা কুম ওয়াতমামতু আলায়কুম নেয়মাতি অরাদিতুলাকুমুল ইসলামা দিনা— কোরআনের এই বাণী তে আল্লাহ পরিষ্কার বলেছেন লাকুম দিনুকুম অর্থাৎ তোমাদের জন্য তোমাদের ধর্ম৷ এখানে আল্লাহ ধর্ম তো নয়৷ আল্লাহ স্রষ্টা, আল্লাহ মালিক৷ তার ধর্ম করার কি দরকার ? মানুষের জন্য ধর্ম৷ এইভাবে সাঈদী সাহেবের মন্তব্য বাবাজান খন্ডন করলেন৷ সূফী সম্রাট বলে সাঈদী সাহেব যে ব্যঙ্গোক্তি করলেন, তার জবাবে বাবা বললেন, আপনারা বহু জলসায় লিফলেটে দেখবেন, শাহসুফী লেখে ৷শাহ সুফি মানে হল সূফী সম্রাট৷একটা সাধারণ সুফি নামের আগে শাহসুফি লিখতে পারে ,আপনারা বলতে পারেন, আর আমার এত রুহানী সন্তান, যারা সুফি সাধক, তারা সূফী সম্রাট আমাকে যদি বলে, তাহলে আপত্তি কিসের ? এটাই হিংসা৷ হিংসা থেকে এ কথা বলছে৷ মহামানব হওয়াটা কি পাপ? মানুষ তো চায় মহামানব হতে৷ মহামানব তো মানুষের কাম্য, কাঙ্খিত৷ তাহলে তার বিরুদ্ধে কথা বলে লাভ কি ? আমি চেয়ারে বসে আছি বলে সে বিষোদগার করছে৷ কিন্তু সকাল থেকে রাত দশটা পর্যন্ত আমি মানুষের জন্য বসে থাকি৷ একটানা বসে থাকা কত কষ্ট কর সেটা কি সে জানে ? আমিতো মানুষের সমস্যা সমাধান দেই৷ আত্মার বাণী চুবিয়ে পানি খেলে রোগ সেরে যায়৷ এতে তার আপত্তি কিসের ? আল্লাহ যদি সারিয়ে দেয় তাহলে কার কি করার আছে ? ডাক্তাররা হল জাহিরি ডাক্তার, দৈহিক ডাক্তার৷ অলীআল্লাহগণ হল জাহিরি বাতেনী ডাক্তার ৷তারা দেহের রোগ সারায় মনের রোগ সারায় বাতেনী রোগ সারায় রুহানি রোগ সারায়৷ অলি আল্লাহ হলেন ত ডাক্তার৷ আপনারা ডাক্তারের কোন ধর্ম দেখেন না৷ হিন্দু-মুসলিম যেই হোক ভালো ডাক্তার হলে তার কাছে যান৷ আর ওলীআল্লার যদি ডাক্তার হয় আপত্তি কিসের ? এভাবে বাবাজান সুন্দর করে ব্যাখ্যা করলেন৷ আমি বুঝতে সমর্থ হলাম৷
বাবা দেওয়ানবাগী আমাকে বিদায়ের সময় বলেছিলেন, সারা ভারতে মোহাম্মদী ইসলাম প্রচার করতে পারবেন না ?  আর একটা কথা হল, আপনাদের জন্য ভারতের মাজারে যত অলি আল্লাহ আছেন, সবাই কাঁদছেন আপনাদের দুরবস্থা দেখে৷ আমরা তরিকাটা পেয়েছি ভারতের ওলীআল্লাহ থেকে৷ শাহ অলিউল্লাহ দেহলবী আব্দুল আযীয দেহলবী শহীদ আহমদ বেরলভী— এনারা সব ভারতের ওলীআল্লাহ৷এর থেকে আমরা তরিকাটা পেয়েছি৷ এনাদের বহু প্রতিনিধি ওলি আল্লাহ ভারতের জমিনে শুয়ে রয়েছেন৷ আপনি আমার পক্ষ থেকে এই মাজারগুলোতে সালাম দেবেন৷ আপনি কি পারবেন না ? আমি বললাম বাবা আপনি দোয়া করলে আমি পারবো৷ এই যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছিলাম কিন্তু পরবর্তীতে এই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করা টা কত কঠিন সেটা এখন আমি হাড়ে হাড়ে বুঝতে পারছি৷ সারা ভারত একটুখানি জায়গা নয় ভারত একটা উপমহাদেশ৷ হাজার হাজার অলি আল্লাহ রয়েছেন৷ একটা প্রদেশ হাজার হাজার অলি আল্লাহ রয়েছেন৷ আমার একার পক্ষে এই সমস্ত মাজারে যাওয়া সহজ নয়৷ মাত্র আট-দশটা প্রদেশে সর্বত্র পারিনি৷কিছু কিছু মাজারে সালাম দিয়ে পৌঁছেছি৷ পশ্চিমবাংলার প্রায় সব জেলায় পৌঁছেছি৷ আসামের মুসলিম অধ্যুষিত জেলা গুলোতে প্রায় পৌঁছেছি৷ মেঘালয় বিহার ঝাড়খন্ড উড়িষ্যা উত্তর প্রদেশ হরিয়ানা দিল্লি রাজস্থানে কিছু কিছু মাজারে বাবা দেওয়ানবাগীর সালাম পৌঁছে দিয়েছি৷ বাবা দয়া করলে আরো অন্যান্য রাজ্যে পৌছে দেবো ইনশাল্লাহ৷ (ক্রমশ চলতে থাকবে)
Scroll to Top